কক্সবাজার সৈকতে বিশাল আকৃতির তিমি, দেখতে উৎসুক জনতার ভিড়

0
কক্সবাজারের হিমছড়িতে জোয়ারের পানিতে ভেসে এলো এক বিশাল আকৃতির তিমি। তিমিটিকে দেখতে সমুদ্র সৈকতে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে  ভিড় জমাচ্ছে জনসাধারণ, ব্যবস্থা নিচ্ছে রামু উপজেলা প্রশাসন।
শুক্রবার (০৯ এপ্রিল) দুপুর ১২ টার দিকে স্থানীয় লোকজন সাগরের পানিতে ভাসমান অবস্থায় প্রথমে তিমিটিকে দেখতে পান বলে জানান। পরে কাছে গিয়ে এটিকে মৃত পাওয়া যায়।
কীভাবে এই জীব মারা গেল তা এখনও জানা যায়নি। তবে এক কর্মকর্তার বক্তব্য, খুব সম্ভবত প্রাণীটি অন্য কোথাও মারা গেছে, তারপরে সেটি ভেসে ভেসে পৌঁছেছে  এই সমুদ্র সৈকতে।

কক্সবাজার সৈকতে বিশাল আকৃতির তিমি

রামু উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা প্রণয় চাকমা জয় বাংলা বিডিকে  জানান, মৃত তিমি মাছ সাগরে ভেসে এসেছে বলে ইতিমধ্যে তিনি অবগত হয়েছেন এবং তিনি উক্ত জায়গায় দায়িত্ব এসি ল্যান্ড (রামু) কে দিয়েছেন সরেজমিন পরিদর্শন করে। কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ময়না তদন্তে পাঠানো হবে তারপরে জানা যাবে কিভাবে কখন মারা গিয়েছে এই বিলুপ্ত প্রাণী তিমিটি।
তিনি আরো বলেন, রামু উপজেলা হতে হিমছড়ির ভৌগোলিক দূরত্ব বেশি হওয়াতে কিছু টা সময় লাগছে পুলিশ পাঠাতে। এসি ল্যান্ড এর সাথে থাকা পুলিশ টীমের সাহায্যে স্থানীয় উৎসুক জনতাকে সরিয়ে দেয়া হবে। 
কক্সবাজার সমুদ্র গবেষনা ইন্সটিটিউটের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা তারেকুল ইসলাম জানান, তিনি বর্তমানে মৃত তিমির সামনে রয়েছেন তিনি তিমির শরীরে আঘাতের কোন চিহ্ন দেখতে পান নি, ধারনা করা হচ্ছে এটি খাদ্য বিষক্রিয়াতে মারা যেতে পারে। তবু ময়না তদন্তের রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পরে নিশ্চত হওয়া যাবে।
তিমিটির পেছনের দিকের অংশে বড় ধরনের ক্ষত রয়েছে। যার ফলে ধারণা করা হচ্ছে লকডাউনের কারণে জনমানব শূন্য সৈকতের কাছাকাছি আসলে তিমিটিকে সাগর দস্যুরা হত্যা করে থাকতে পারে বলে অনুমান করা হচ্ছে। অথবা গভীর সাগরের কোথাও এটিকে শিকারীরা হত্যা করেছে। পরে ভাসতে ভাসতে প্রানীটি কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে এসেছে।
বেশ কিছু দিন আগে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে একটি মৃত তিমি মাছ ভেসে আসলে ময়না তদন্তে তা সমুদ্রের প্লাস্টিক খেয়ে মারা গিয়েছিলো বলে জানা যায়।
মৃত তিমিটি থেকে প্রচণ্ড দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। এ কারণে তিমিটি আরো কয়েকদিন আগে মারা গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।