জুনের শেষে আসছে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চতুর্থ তালিকা

0

প্রায় ৩৫ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার বেসামরিক গেজেটে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের অনুমোদন না থাকায় তাদের নাম তালিকার বাইরে রাখা হয়েছে। এই তালিকা ৩০ জুনের মধ্যে প্রকাশের আশ্বাস দিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী।

যাচাই বাচাই এর কাজ এখনো চলছে বলে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক ‘দৈনিক জয় বাংলাকে’ বলে, ৩০ জুন পর্যন্ত আমরা যে সময় নিয়েছি। সব কিছু ঠিক থাকলে সে সময়ের মধ্যে যাচাই-বাচাই করে আমরা বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করব।

 আমরা যথাযথ প্রক্রিয়ায় তৃণমূল থেকে তদন্তের মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা চূড়ান্তকরণের কাজ করছি।

ইতোমধ্যে গেজেট নিয়মিতকরণের লক্ষ্যে ৪৩৪ উপজেলার প্রতিবেদন পেয়েছে মন্ত্রনালয়। সেগুলো যাচাই-বাছাই এবং আপিল শুনানি শেষে আগামী ৩০ জুনের মধ্যে যাচাই-বাছাইধীন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের নামের চূড়ান্ত তালিকায় প্রকাশ করা হবে।

জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের (জামুকা) অনুমোদনবিহীন বেসামরিক গেজেট নিয়মিত করে আট বিভাগের ৩৮৮টি উপজেলার ১২ হাজার ১১৬ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম প্রকাশ করা হয়।

এর আগে গত ২৫ মার্চ প্রথম ধাপে ১ লাখ ৪৭ হাজার ৫৩৭ জন এবং দ্বিতীয় ধাপে গত ৯ মে ৬ হাজার ৯৮৮ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নামের সমন্বিত তালিকা প্রকাশ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

তৃতীয় পর্বে ১২ হাজার ১১৬ জন বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম প্রকাশ করেছে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়।