ঈদে শ্বশুরবাড়ির দাওয়াত না পেয়ে স্ত্রীকে হত্যা!

0
কোরবানির ঈদে শ্বশুরবাড়িতে দাওয়াত না দেয়ায় ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়নের নাদপাড়া গ্রামে স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার পর ঘরে ঝুলিয়ে রেখেছেন স্বামী। গতকাল শনিবার (২৪ জুলাই) রাতে এ ঘটনা ঘটে।
ঘটনার শিকার গৃহবধূর নাম সাথী খাতুন (৩০)। অভিযুক্ত স্বামীর নাম ফজলু মন্ডল। ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী, শ্বশুর-শাশুড়ি পলাতক রয়েছেন।
সাথী খাতুনের বাবা একই ইউনিয়নের ভাটবাড়িয়া গ্রামের নজরুল মণ্ডল জানান, সাথীর স্বামী ফজলু ও শ্বশুর বারিক মণ্ডল মাদকাসক্ত। তার মেয়ের সংসারে দুটি সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর থেকেই সাথীকে বিভিন্নভাবে নির্যাতন করতেন ফজুলসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন।
পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া সাথীর মেয়ে সারমীন জানান, শনিবার সকালে মাকে নির্যাতনের সময় তার দাদা ও দাদী মায়ের বুকের উপর পরে যায়। তখন থেকেই সে আর কথা বলতে পারে না।
ঘটনার তদন্তকারী কর্মকর্তা শৈলকুপা থানার উপ-পরিদর্শক মোঃ রেজউল ইসলাম বলেন, সাথী ও তার স্বামী ফজলুর মধ্যে দীর্ঘদিন অশান্তি ছিল। নিহতের সুরতহাল রিপোর্টে শরীরের বিভিন্ন স্থানে নির্যাতনের কালো দাগ ও গলায় রশির চিহৃ পাওয়া যায়। সাথীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।