পেয়েছে আশ্রয়, এবার পাবে করোনার টিকা: রোহিঙ্গা ক্যাম্পে খুশির জোয়ার

0

৭ থেকে ১২ আগস্ট পর্যন্ত দেশব্যাপী শুরু হচ্ছে করোনা ভ্যাকসিন প্রদান কার্যক্রম। এই সময়ে প্রতিটি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড পর্যায়ে নির্ধারিত টিকা কেন্দ্রে সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৩ টা পর্যন্ত ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

একইভাবে পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশনেরও প্রতিটি ওয়ার্ডে নির্ধারিত কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে। ১৮ বছরের উর্ধ্বে প্রতিটি নাগরিক টিকা গ্রহণের আওতায় থাকবে।

বুধবার সরকারের তরফে জারি করা প্রজ্ঞাপনে এই তথ্য জানানো হয়। যারা ইতোমধ্যে টিকা নেওয়ার জন্য নিবন্ধন করেছেন তারা উল্লেখিত সময়ে কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নিতে পারবেন।

কক্সবাজার জেলা শহর সহ সব উপজেলায় ৯ টি কেন্দ্রে একযোগে চলবে করোনার টিকা কার্যক্রম। জেলায় এ পর্যন্ত ১ লক্ষ ৪০ হাজার মানুষ প্রথম ডোজ এবং প্রায় ৫৯ হাজার মানুষ ২য় ডোজ গ্রহন করেছে।

সিভিল সার্জন জানিয়েছেন, সরকার ঘোষিত গণহারে টিকা কার্যক্রম চালানোর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

কক্সবাজার এছাড়াও সরকারি উদ্যোগে রোহিঙ্গাদের টিকা দেয়া হবে বলে জানান শরনার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার। তিনি জানান, প্রথমধাপে ৫৫ বছর বয়সী রোহিঙ্গাদের আনা হবে টিকার আওতায়।

এদিকে জেলায় গত দিন ২০৭ জনসহ এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত ১৮ হাজার ৭৪২ জন,যার মধ্যে রোহিঙ্গা রয়েছে ২ হাজার ৫৭১ জন। অন্যদিকে গেলো ৩ দিনে ১২ জনসহ এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২০২ জনের। যার মধ্যে রোহিঙ্গা নাগরিক রয়েছে ২৮ জন।