চকরিয়ায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাইক্রোবাস পুকুরে : শিশুসহ ৭ জনের মৃত্যু

0

চকরিয়ার ভেন্ডিবাজার এলাকায় বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে ধাক্কা লেগে মাইক্রোবাস খাদে পড়ে নারী-শিশুসহ সাতজনের প্রাণহানি ঘটেছে। নিহতদের একজন পথচারী ও বাকি ছয়জন মাইক্রোবাসের যাত্রী। এদের মাঝে একজন ঘটনাস্থলে বাকি ছয়জন হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান বলে জানিয়েছেন চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মো. যুবায়ের।

নিহতরা হলেন- চকরিয়ার ডুলহাজরা ১ নম্বর ওয়ার্ডের ইসমাইলের স্ত্রী হাজেরা বেগম (৫৫), রাম মাস্টারের ছেলে রতন বিশ্বাস (৫০), তার স্ত্রী মধুমিতা (৪৫), চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার প্রদীপ রুদ্রের স্ত্রী পূর্ণিমা রুদ্র (৩০), পূর্ণিমা রুদ্রের ছেলে স্বার্থক রুদ্র (৩) ও সাধন রুদ্রের স্ত্রী রানী রুদ্র (৬০)। অপরজনের নাম এখনো পাওয়া যায়নি।
রোববার (১৫ আগস্ট) বেলা সোয়া ১০ টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় আহত আরও দুজনকে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। মাইক্রোবাসের যাত্রীরা কক্সবাজার থেকে বাঁশখালী যাচ্ছিলেন বলে জানা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা দ্রুত এগিয়ে এসে গাড়িটি টেনে তোলার চেষ্টা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ টিমও আসে ঘটনাস্থলে। কিন্তু গাড়ির দরজা-জানালা ভেতর থেকে বন্ধ থাকায় আটকেপড়াদের বের করতে বেগ পেতে হয়। অনেক চেষ্টায় তাদের বের করার পর একজনকে মৃত পাওয়া যায়। হাসপাতালে নেওয়ার পর আরও ছয়জনের মৃত্যু হয়।

মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক শাফায়েত হোসেন বলেন, দুর্ঘটনা-কবলিত মাইক্রোবাসটি হাইওয়ে পুলিশের হেফাজতে নেয়া হয়েছে। নিহতদের স্বজনদের সিদ্ধান্তে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে। মরদেহগুলো চকরিয়া থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে বলে জানান তিনি।