কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে অনিয়মের অভিযোগ, প্রতিবাদে ফি বন্ধের ঘোষণা শিক্ষার্থীদের

কক্সবাজার নিউজ

0

বেশ কিছু দিন ধরে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট ফোরাম শিক্ষার্থীদের ন্যায্য এবং যৌক্তিক দাবীগুলো নিয়ে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে কাজ করে যাচ্ছিলো। তাদের চলমান দাবীগুলোর মধ্যে মহামান্য রাষ্ট্রপতি কর্তৃক অনুমোদিত উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষ নিয়োগ এবং স্থায়ী ক্যাম্পাস স্থাপন নিয়ে রূপরেখা প্রকাশ অন্যতম। তারই অংশ হিসেবে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি স্টুডেন্ট ফোরাম গত ১৬,১৭,১৮,১৯,২০আগস্ট-২০২১ তারিখ যথাক্রমে আইন, ইংরেজি, বিবিএ, কম্পিউটার বিজ্ঞান এবং প্রকৌশল ও এইচটিএম’র অনুষদ এর সাধারণ শিক্ষার্থীদের নিয়ে অনলাইন প্লাটফর্ম-এ মুক্ত আলোচনার আয়োজন করে। উক্ত মুক্ত আলোচনায় শিক্ষার্থীগণ স্বতস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে তাদের চলমান সমস্যা এবং দাবিগুলো নিয়ে আলোচনা করেন।

স্টুডেন্ট ফোরাম তাদের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে প্রাথমিক কর্মসূচি হিসেবে সকল শিক্ষার্থী একযোগে সকল ধরনের এনরোলমেন্ট ফি, সেমিস্টার ফি, ল্যাব ফি, লাইব্রেরি ফি, এক্সাম ফি বন্ধ করে দেওয়ার ব্যাপারে অনলাইনে ভোটের আয়োজন করে। ২০ আগস্ট থেকে ২৫ আগস্ট ২০২১ ইং অনলাইনে এ ভোট গ্রহণ করা হয়। উক্ত অনলাইন ভোটের সময় আইন অনুষদ ৭৬%,বিবিএ অনুষদ ৭৯%, কলা অনুষদ ৮৮%, বিজ্ঞান অনুষদ ৯৫%, এবং এইচটিএম এর ৯২% শিক্ষার্থী ভোটে অংশগ্রহণ করেন। ভোটে অংশগ্রহণকারী সকল শিক্ষার্থী মহামান্য রাষ্ট্রপতির প্রতিনিধি না আসা পর্যন্ত সকল ধরনের ফি পরিশোধ করবে না মর্মে প্রতিশ্র‍ুতি প্রদান করেন।
মুক্ত আলোচনায় গত ১২/০৮/২০২১ এর ইউনিভার্সিটি মঞ্জুরী কমিশন প্রজ্ঞাপন এর ব্যাপারে আলোচনা করা হয় এবং কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এর ঊপর নিয়ম অনুযায়ী কয়টি তারকা চিহ্ন এর আশাংকা করা হচ্ছে তা নিয়ে শিক্ষার্থীদের আতংকের কথা আলোচনা করা হয়।
১৬/০৬/২০২১ ইং তারিখ প্রকাশিত জাতীয় দৈনিক বণিক বার্তার উদ্ধৃতি দিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা বলেন, নানা একাডেমিক, প্রশাসনিক ও আর্থিক অনিয়মের কারণে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (সিবিআইইউ)তে একবছরের জন্য শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ রাখার সুপারিশ করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। ইউজিসি পরিদর্শন দল বিশ্ববিদ্যালয় সরেজমিন পরিদর্শন শেষে এ সুপারিশ পেশ করেছেন বলে সংবাদে উল্লেখ করা হয়। এতে বুঝা যায়, আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণার সংকায় শিক্ষার্থী রা দিন পার করছে। যেখানে শিক্ষার্থী ভর্তি বৃদ্ধির লক্ষ্যে গুরুত্বারোপের কথা রয়েছে সেখানে ইউজিসি কর্তৃক একবছর ভর্তি বন্ধ রাখার সুপারিশ আমাদেরকে চরম হতাশ করেছে। কতিপয় শিক্ষার্থী ক্ষুব্ধ কন্ঠে কর্তৃপক্ষের কাছে বিশ্ববিদ্যালয়ের এহেন পরিস্থিতি ও উক্ত সংবাদের সঠিক ব্যাখ্যা দাবী করেন।

আলোচনায় অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন সেমিস্টারের ছাত্রছাত্রীরা বলেন, দীর্ঘ সময় ধরে বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার কোন পরিবেশ নেই। তারউপর, ট্রাস্টের মামলা-মোকাদ্দমা থেকে শুরু করে নানান বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়েছে। আলোচনার মাধ্যমে তা নিষ্পত্তিপূর্বক পূর্বের ন্যায় শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ ফিরিয়ে আনা না হলে প্রাণের এ বিশ্ববিদ্যালয় রক্ষায় আরো কঠোর কর্মসূচি দিতে তারা ফোরাম নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান।
কোন অব্যবস্থাপনা ও অনিয়মের কারণে যেন প্রাণপ্রিয় বিশ্ববিদ্যালয় স্থায়ীভাবে বন্ধ হয়ে না যায়, সেলক্ষ্যে অংশগ্রহণকারী সকলে সম্মিলিতভাবে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়ে আন্দোলনের ধারা অব্যাহত রেখে অধিকার আদায় এর প্রত্যয় ব্যক্ত করে।