কক্সবাজার জেলায় স্থগিত ৪ কেন্দ্রে নৌকা ২, বিদ্রোহী ১ ও স্বতন্ত্র ১ চেয়ারম্যান নির্বাচিত

0

নির্বাচনী সহিংসতায় স্থগিত হওয়া কক্সবাজারের কুতুবদিয়ার বড়ঘোপ, উখিয়ার হলদিয়া পালং, সদরের খুরুশকুল ও টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ের ৪ কেন্দ্রে উৎসব মুখর পরিবেশে নজিরবিহীন ভোট সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার (৩০ ডিসেম্বর) সকাল ৮টা থেকে এসব কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু হয়। যা একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত চলে। নির্বাচন ঘিরে জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ ও পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামানের নেতৃত্বে মাঠে ছিল র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ, গোয়েন্দা বাহিনী, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেটরা। ছিল ভ্রাম্যমাণ টিম। কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়ায় শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ ও ফলাফল ঘোষিত হয়। এমন সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও উৎসবমুখর নির্বাচন আগে কখনো দেখেনি মানুষ। এ জন্য জেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশ, জেলা নির্বাচন অফিস, র‌্যাব, বিজিবি ও গোয়েন্দা বাহিনীর প্রশংসায় পঞ্চমূখ সকলের।

ভোট গণনা শেষে বেসরকারিভাবে ঘোষিত ফলাফলে ৪টি ইউনিয়নের মধ্যে নৌকা প্রতীকের ২জন, বিদ্রোহী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ১ জন করে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। নির্বাচিতরা হলেন, সদর উপজেলার খুরুশকুলে নৌকার চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহজাহান ছিদ্দিকী। তিনি স্থগিত তেতৈয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট গ্রহণ শেষে ৯৮৬ ভোট পেয়েছে। সেই হিসেবে আগের ৮ হাজার ২১৩ ভোটসহ তিনি সর্বমোট ৮ হাজার ১৯৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি মোটর সাইকেল প্রতীকের নুরুল আমিনের আগের ভোট ছিল ৬ হাজার ৫৭৯। এই কেন্দ্রে ৭৮২ ভোটসহ সর্বমোট ভোট পেয়েছেন ৭ হাজার ৩৬১। সেই কেন্দ্রে ৯২০ ভোট পেয়ে মেম্বার নির্বাচিত হয়েছেন ফুটবল প্রতীকের আবু বক্কর ছিদ্দিক ও মহিলা মেম্বার নির্বাচিত হয়েছেন তালগাছ প্রতীকের পারভিন আক্তার।

অপরদিকে উখিয়ার স্থগিত একটি ভোট কেন্দ্রের পূনঃনির্বাচনে সাংবাদিক ইমরুল কায়েস চৌধুরী ঘোড়া প্রতীকে বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। দিনভর টান টান উত্তেজনা ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা গুজবের মাঝে মঙ্গলবার উখিয়ার ৩ নং হলদিয়াপালং ইউনিয়নের স্থগিত ৫ নং ওয়ার্ড নলবনিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে নিশ্চিদ্র নিরাপত্তা সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। পূনঃনির্বাচনে ওই কেন্দ্রে ৩৩০৫ ভোটের মধ্যে ২৬৪৬ ভোট গৃহীত হয়। ঘোষিত ফলাফলে ঘোড়া প্রতীক নিয়ে সাংবাদিক ইমরুল কায়েস চৌধুরী পেয়েছেন ১৬৯০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামীলীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান মোঃ শাহ আলম পেয়েছেন ৯৩১ ভোট।

গত ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ওই ইউনিয়নের উক্ত ভোট কেন্দ্রে বিকেলে ব্যালট বাক্স ছিনতাই হলে ঐ কেন্দ্রের ফলাফল বাতিল করা হয়। ফলে উক্ত কেন্দ্রের কারণে চেয়ারম্যান প্রার্থী, সাধারণ সদস্য ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্যের ফলাফল স্থগিত হয়ে পড়ে। নির্বাচনে সাধারণ সদস্য পদে সরওয়ার বাদশা আপেল প্রতীক নিয়ে ও সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে জহুরা বেগম মাইক প্রতীক নিয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন বলে উখিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ইরফান আহমেদ জানান।